পেঙ্গুইনের জন্য সোয়েটার বোনাই ছিল তার নেশা

পেঙ্গুইনের জন্য সোয়েটার বোনাই ছিল তার নেশা

পেঙ্গুইনের জন্য সোয়েটার বোনাই ছিল তার নেশা

পেঙ্গুইনের জন্য সোয়েটার বোনাই ছিল তার নেশা। পেঙ্গুইদের সোয়াটার পরার কথা শুনে একটু অবাক হয়েছেন বৈকি। পেঙ্গুইনের বাস বিশ্বের অন্যতম শীতলতম স্থান অ্যান্টার্টিকায়। হাড় কাঁপানো বরফ যাদের আবাসস্থল তাদের আবার সোয়েটার লাগবে কেন! আবার সেই সোয়েটার বোনা নেশা একজনের।

 

পেঙ্গুইনের জন্য সোয়েটার বোনাই ছিল তার নেশা।For More News Update:

 

বিশ্বের প্রবীণ মানুষদের তালিকায় রয়েছেন অ্যালফ্রেড অ্যালফি ডেট। গিনেস বুক অব ওয়াল্ড রেকর্ডসে অস্ট্রেলিয়ার সবচেয়ে প্রবীণ পুরুষ ছিলেন অ্যালফ্রেড। ২০১৬ সালে ১১১ বছর বয়সে মারা যান তিনি। তার নেশা ছিল পেঙ্গুইন ছানাদের জন্য সোয়েটার বোনা। এমনকি মানুষকে উদ্ভুদ্ধ করতেন সোয়াটার ডোনেট করতে।

 

মূলত আহত পেঙ্গুইন ছানাদের সুস্থ করতে উলের সোয়েটার বানাতেন অ্যালফ্রেড। তিনি ৮০ বছর ধরে সোয়েটার বোনার কাজ করেছেন। উল বোনা ও উলের কাজ করা ছিল তার খুবই প্রিয়। পেশায় তাঁতী ছিলেন অ্যালফ্রেড। বয়সের কারণে কাজ থেকে অবসর নেন তিনি। তখন সময় কাটানো খুবই কষ্টকর হয়ে যায় সারাক্ষণ ব্যস্ত থাকা মানুষটি।

 

পেঙ্গুইনের জন্য সোয়েটার বোনাই ছিল তার নেশা।Visit our YouTube Chanel:

 

তবে চলুন জেনে নেওয়া যাক অ্যালফ্রেড কীভাবে পেঙ্গুইন ছানাদের দেশের রাজা হলেন। সময়টা ২০১৩ সাল। একটি জাহাজ থেকে তেলের ট্যংকার ভেঙে অস্ট্রেলিয়া ও নিউজিল্যান্ডের পেঙ্গুইনদের অসুস্থ করতে লাগলো। শত শত পেঙ্গুইনের ছানা মারা যেত লাগলো। তখন তিনি কাজে নামলেন। এই দুটি দেশে ছিল মোট ৩২ হাজার পেঙ্গুইন।

 

ভিক্টোরিয়া অঙ্গরাজ্য, অষ্ট্রেলিয়ান অংশে আছে ফিলিপ আইল্যান্ড। সেখানেই পেঙ্গুইন দল বেঁধে একটি জায়গাতে বাস করে। অ্যালফ্রেড সেখানকার দ্য ফিলিপ আইল্যান্ড পেঙ্গুইন ফাউন্ডেশন আবেদন করতে শুরু করলেন। সবাইকে উলের জার্সি তৈরি করতে অনুদান দিতে, যাতে বেঁচে যাওয়া পেঙ্গুইন ছানাগুলোকে নিশ্চিত জীবন উপহার দেওয়া যায়।

দক্ষিণ কোরিয়ায় ৩ হাজার জুটির গণবিয়ে। গ্লোবাল নিউজ।

Leave a Reply

Your email address will not be published.